হেডিংলি বীরত্বের কোনও মানে নেই অ্যাশেজ হারলে

0

এফএনএস স্পোর্টস: অ্যাশেজের তৃতীয় টেস্টে ইংল্যান্ডকে ১ উইকেটে জিতিয়ে প্রশংসার সাগরে ভাসছেন বেন স্টোকস। তার ১৩৫ রানের হার না মানা ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার কাছ থেকে ‘ভস্মাধার’ উদ্ধারের আশা বাঁচিয়ে রেখেছে স্বাগতিকরা। ম্যানচেস্টারে চতুর্থ ম্যাচ খেলতে নামার আগে স্টোকস জানালেন, অ্যাশেজ ঘরে ফেরাতে না পারলে তার এই বীরোচিত ইনিংসের কোনও অর্থ থাকবে না। গত ১৫ জুলাই লর্ডসে বিশ্বকাপ ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অসাধারণ এক ইনিংস খেলে ইংল্যান্ডকে প্রথম শিরোপা এনে দেন স্টোকস। মাসখানেক পরই তার আরেকটি বীরোচিত ইনিংসে দুর্দান্ত জয়ে অ্যাশেজের ইতিহাসের পাতায় ঢুকে গেছেন তিনি। কিন্তু এসব ব্যক্তিগত প্রাপ্তিতে সন্তুষ্ট এখনই হচ্ছেন না স্টোকস। সিরিজ জেতাই হবে তার জন্য সবচেয়ে বড় পাওয়া। স্কাই স্পোর্টস নিউজকে স্টোকস বলেছেন, ‘আমি মনে করি না এটা খুব বড় প্রাপ্তি, প্রধান কারণ হলো এখনও দুই ম্যাচ বাকি আছে আমাদের। যদি আমরা অ্যাশেজ ফিরে না পাই, তাহলে এই অনুভূতি কেমন হবে? যদি আমরা অ্যাশেজ জিতি তাহলেই এই ইনিংস থেকে আমি সত্যিকারের সন্তুষ্টি লাভ করবো। হেডিংলিতে চমৎকার একটা সপ্তাহ ছিল এবং এটা ভুলে যাওয়া খুব কঠিন, কিন্তু এখনও লম্বা পথ পাড়ি দিতে হবে আমাদের। শেষ উইকেটে ৭৬ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়তে স্টোকস সঙ্গী হিসেবে পেয়েছেন জ্যাক লিচকে, যিনি ১৭ বল খেলে মাত্র ১ রানে অপরাজিত ছিলেন। শেষ জুটির সঙ্গীকে নিয়ে ইংলিশ অলরাউন্ডার বলেছেন, ‘এটা ছিল খুবই আইকনিক ছবি, প্রত্যেক বলের পর জ্যাক লিচ তার চশমার কাঁচ পরিষ্কার করছিল এবং সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।’ জয়ের কৃতিত্ব এই স্পিনারকেও দিলেন স্টোকস, ‘এই ম্যাচ জয়ে অনেক কৃতিত্ব পেতে পারে সে। কারণ যে ১৭টি বল সে খেলেছে, সেটা সম্ভবত তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এমনকি ভবিষ্যতেও এরকম কিছুর মুখোমুখি হয়তো সে হবে না।’

Share.

Leave A Reply