হরলান্ডের কাছে পরাস্ত হলো পিএসজি

0

এফএনএস স্পোর্টস: নরওয়েজিয়ান টিন এজ সেনসেশন আর্লিং ব্রট হরলান্ডের কাছে শেষ পর্যন্ত পরাস্ত হতে হলো পিএসজিকে। মঙ্গলবার হরলান্ডের জোড়া গোলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ১৬’র প্রথম লেগের ম্যাচে পিএসজিকে ২-১ গোলে পরাজিত করেছে স্বাগতিক বরুসিয়া ডর্টমুন্ড। ইনজুরি কাটিয়ে নেইমারের ফেরাটাও পিএসজির পরাজয় রুখতে পারেনি। সিগন্যাল ইডুনা পার্কে ৬৯ মিনিটে হরলান্ডের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ডর্টমুন্ড। অথচ বিশ্বের সবচেয়ে দামী খেলোয়াড় নেইমার ও তার সাথে থাকা আরো দুই দুই তারকা কিলিয়ান এমবাপ্পে ও এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়াদের নিয়ে গড়া শক্তিশালী পিএসজি যেন পুরো ম্যাচে ছিল একেবারের অচেনা। যদিও ৭৫ মিনিটে এমবাপ্পের সহায়তায় নেইমার ম্যাচে সমতা ফিরিয়েছিল। কিন্তু দুই মিনিট পর বদলী খেলোয়াড় গিওভান্নি রেইনার পাসে বাম পায়ের জোড়ালো শটে হরলান্ড দলকে আবারো এগিয়ে দেবার পাশাপাশি জয় নিশ্চিত করেন। আগামী ১১ মার্চ ফিরতি পর্বে পার্ক ডি প্রিন্সেসে ডর্টমুন্ডকে আতিথ্য দেবার আগে হরলান্ডকে নিয়ে আলাদা পরিকল্পনা করতেই হবে থমাস টাচেলের দলকে। যদিও পিএসজি’র ৪০২ মিলিয়ন ইউরোর এ্যাটাকিং জুটি নিজেদের প্রমানে মুখিয়ে আছেন। ঘরের মাঠে নেইমার-এমবাপ্পে যেকোন সময়ই বিপদজনক হয়ে উঠতে পারেন, যা তারা আগেও প্রমান করেছেন। তবে চার বছরের মধ্যে প্রথমবারের মত ইউরোপিয়ান সর্বোচ্চ আসরের কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করতে হলে এই জুটির ভাল খেলার বিকল্প নেই। মঙ্গলবার রাতে অবশ্য জয়টা ডর্টমুন্ডেরই প্রাপ্য ছিল। বিশেষ করে দ্বিতীয়ার্ধে যেভাবে পুরো দল উজ্জীবিত খেলা উপহার দিয়েছে তাতে পিএসজিকে অনেকটাই অসহায় মনে হয়েছে। পিএসজি যেন ম্যাচটির শেষ বাঁশি বাজার অপেক্ষায় ছিল। ৬৯ মিনিটে রাফায়েল গুয়েরিরোর শট থিয়াগো সিলভা ব্লক করলে খুব কাছে থেকে দলকে এগিয়ে দেন হরলান্ড। এক গোলে পিছিয়ে থেকে তা পরিশোধে মরিয়া হয়ে উঠে টাচেলের শিষ্যরা। ৭৫ মিনিটে সুযোগও পেয়ে যান। ডর্টমুন্ডের দুজন ডিফেন্ডারের মাঝ দিয়ে এমবাপ্পের বাড়ানো বলে গোলরক্ষক রোমান বুরকিকে একা পেয়ে কোন ভুল করেননি নেইমার। তবে তাদের এই স্বস্তি খুব বেশীক্ষন স্থায়ী হয়নি। দুই মিনিট পরেই ১৯ বছর বয়সী হরলান্ড দারুন দক্ষতায় নিজের দ্বিতীয় গোল করলে ডর্টমুন্ডের জয় নিশ্চিত হয়। এবারের মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সাত ম্যাচে এটি হরলান্ডের ১০ম গোল। গত বছর নরওয়ের জার্সি গায়ে অনুর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপে এক ম্যাচে নয় গোল করে নিজের প্রতিভার জানান দিয়েছিলেন এই নরওয়েজিয়ান। ডর্টমুন্ড সতীর্থরাও ম্যাচ শেষে এই তরুন প্রতিভার প্রশংসা করতে ভুল করেননি। এখনো তার উন্নতির অনেক সময় রয়েছে বলে সবাই আশাবাদ জানিয়েছেন। জানুয়ারিতে লুসিয়েন ফাভরের দলে আসার আগে সালজবার্গের হয়ে ২২ ম্যাচে করেছেন ২৮ গোল। ডর্টমুন্ডের জার্সি গায়ে নিজের অভিষেক ম্যাচেই অগাসবার্গের বিপক্ষে করেছেন হ্যাটট্রিক। নতুন ক্লাবের হয়ে ৭ ম্যাচে এখন তার গোলসংখ্যা ১১।

 

Share.

Leave A Reply