স্টোকস-বাটলাররা ভারতীয়দের পা চাটে: ফারুখ

0

এফএনএস স্পোর্টস: আবারও বর্ণবাদী বিতর্কে ঢুকে পড়েছে ইংল্যান্ডের ক্রিকেট। অলি রবিনসনের একের পর এক পুরোনো বিদ্বেষী টুইট ভাইরাল হওয়ার পর থেকে এই অবস্থা। এরপর বিদ্বেষমূলক ট্যুইট করার দায়ে নাম উঠে এসেছে জশ বাটলার, ইয়ন মর্গ্যান, ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, ম্যাট পার্কিনসন, জেমস আন্ডারসনের মত তারকাদের! এমন প্রেক্ষিতেই এবার ইংল্যান্ডকে ধুয়ে দিলেন সাবেক ভারতীয় তারকা ক্রিকেটার ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার। নিজের ক্যারিয়ারে ল্যাঙ্কাশায়ারের হয়ে কাউন্টি খেলতেন ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার। ইংল্যান্ডে খেলার সময় তাকেও নাকি বর্ণবিদ্বেষমূলক আক্রমণ করা হতো। তার ইংরেজি বলার ধরণ নিয়ে কিংবা গায়ের বর্ণ-কুৎসিত বলে বহুবার কটু মন্তব্য শুনতে হয়েছে। ফারুখ বলেন, ‘যখন কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে প্রথম ইংল্যান্ডে যাই, তখন সবাই বলত, সে কি ভারত থেকে এসেছে? ল্যাংকাশায়ারে খেলার সময় দু-একবার এমন ঘটনার সম্মুখীন হই। আমার ব্যক্তিগত জীবন যাপন নিয়ে নয়, তবে ভারত থেকে যাওয়ায় আমাকে নিয়ে এবং আমার ইংরেজি একসেন্ট নিয়ে তুমুল হাসি ঠাট্টা হতো।’  ষাটের দশকের শুরুর দিকে কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে ইংল্যান্ডে পাড়ি দিয়েছিলেন ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। তাকে নিয়ে তামাশা করা হলে তিনিও পাল্টা জবাব দিতেন। তিনি বলেছেন, ‘আমার ইংরেজি অনেক ইংরেজদের থেকেও ভালো। খুব শীঘ্রই তারা বুঝতে পেরেছিল, একে চটানো ঠিক হবে না! আমি সঙ্গেসঙ্গেই তাদের পাল্টা জবাব দিতাম। শুধু তাই নয়, ব্যাট-গ্লাভস দিয়েও তাদের জবাব দিতাম। দেশের একজন প্রতিনিধি হিসেবে ইংল্যান্ডে খেলতে গিয়েছি, এই বিষয়টাই আমাকে গর্বিত করত।’ ফারুখ ইঞ্জিনিয়ারের মতে, আইপিএল শুরু হওয়ার পর ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাঙ্গনে ভারতীয়দের সম্পর্কে দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন ঘটেছে। তার ভাষায়, ‘কয়েক বছর আগে পর্যন্তও তাদের কাছে আমরা ব্লাডি ইন্ডিয়ান্স ছিলাম। তবে আইপিএল শুরু হওয়ার পর তারা এখন আমাদের পেছন চাটছে। ভাবতেও আশ্চর্য লাগে, ¯্রফে অর্থের জন্য তারা আমাদের বুট চাটতেও রাজি! এখন হঠাৎ তারা নিজেদের সুর বদলে ফেলেছে। ক্রিকেট খেলতে না পারলেও কয়েক মাসের জন্য ভারতে গিয়ে টিভিতে কিছু শো করে টাকা ইনকাম করা যাক- এমনটাই ওদের ভাবনা।’

 

 

Share.

Leave A Reply