লালমনিরহাটে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

0

এফএনএস: লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে (১৪) ধর্ষণের অভিযোগে পবিত্র কুমার (১৮) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে নির্যাতনের শিকার ছাত্রীর দায়ের করা অভিযোগটি নিয়মিত মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে আদিতমারী থানা পুলিশ। অভিযুক্ত পবিত্র উপজেলার সারপুকুর ইউনিয়নের কান্তেশ্বরপাড়া গ্রামের রণজিৎ কুমারের ছেলে। মামলার বিবরণে জানা যায়, ওই ছাত্রী স্থানীয় হরিদাস উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণিতে পড়তো। বাবার মৃত্যুর পর ঝিঁয়ের কাজ করে সংসার চালাতো তার মা। বুধবার সন্ধ্যায় তার মা কাজে গেলে বাড়িতে একা পেয়ে প্রতিবেশী পবিত্র তার মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে। এক পর্যয়ে মেয়েটি চিৎকার দিলে প্রতিবেশী একজন এসে হাতে নাতে ধর্ষণের দৃশ্য দেখতে পান। এ সময় পবিত্রকে আটকের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন সেই প্রতিবেশী। পরে মেয়েটি তার মাকে বিষয়টি জানালে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা সালিশে বসে মিমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। অবশেষে নির্যাতনের শিকার ছাত্রী বাদি হয় গত বৃহস্পতিবার রাতে আদিতমারী থানায় লিখিত একটি অভিযোগ করেন। অভিযোগটি আমলে নিয়ে প্রাথমিক তদন্ত শেষে গতকাল শুক্রবার সকালে ধর্ষক পবিত্রর বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা নথিভুক্ত করে পুলিশ। একই সাথে নির্যাতনের শিকার ছাত্রীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ। তবে ধর্ষক পবিত্র পলাতক রয়েছে। ওই ছাত্রীর মা বলেন, দিনভর বৈঠকের কথা বললেও তারা (ধর্ষক পরিবার) প্রভাবশালী হওয়ায় সবাইকে টাকা দিয়ে থামিয়ে রেখেছে। গরিব মানুষ কাজ না করলে ভাত পাই না। বিচার কিভাবে পাবো? তিনি মেয়ের সম্ভ্রম নষ্টকারীর দৃষ্ঠান্তমুলক শাস্তির দাবি করেন। অভিযুক্ত পবিত্র পলাতক থাকলেও তার মা ভারতী রানী বলেন, আমার ছেলের উপর মিথ্যা অভিযোগ দেয়া হয়েছে। আদিতমারী থানা ওসি (তদন্ত) গুলফামুল ইসলাম মন্ডল বলেন, নির্যাতনের শিকার ছাত্রীর করা অভিযোগটি নিয়মিত মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়েছে। ধর্ষক পবিত্র কুমারকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Share.

Leave A Reply