মুক্তিযোদ্ধা বাতেনের জানাজা ও দাফন সম্পন্ন

0

স্টাফ রিপোর্টার : জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আব্দুল বাতেনের দ্বিতীয় নামাজে জানাজা গতকাল সকাল দশটায় বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম বকুল স্বাধীনতা চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে তার মরদেহে রাষ্ট্রিয় মর্যাদা গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। গার্ড অব অনার পরিচালনা করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার রেইনা। এসময় বীর মুক্তিযোদ্ধা বেবী ইসলাম, পাবনা জেলা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবর রহমান হাবিব, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদসহ মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ, পৌরসভার মেয়র শরীফ উদ্দিন প্রধানসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এবং নানা শ্রেনীপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে সকাল আটটায় খোদায়েরপুর মাদ্রাসা মাঠে তার প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। দুটো নামাজে জানাজাতেই অসংখ্য মানুষ শরিক হন। তাকে আরিফপুর সদর গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে। অসুস্থতাজনিত কারনে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় শনিবার সকালে ঢাকার কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে মৃত্যুবরন করেন সদালাপী ও পরোপকারী এই বীর মুক্তিযোদ্ধা। উল্লেখ্য, মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল বাতেন সদর উপজেলার হেমায়েতপুর ইউনিয়নের নাজিরপুর গ্রামের মরহুম এলাহী বক্সের বড় ছেলে। তিনি মুক্তিযোদ্ধা সংসদ পাবনা জেলা ইউনিট কমান্ডের পরপর তিনবার নির্বাচনে ডেপুটি কমান্ডার পদে নির্বাচিত হন। ১৯৭১ সনের ১ ডিসেম্বর পাবনা সদরের নাজিরপুর গ্রামে ইতিহাসের বর্বরতম গণহত্যা সংঘঠিত হয়। এ দিন পাকিস্তানি শত্রু সেনা ও নকশালরা ৬৬ জনকে একসঙ্গে গুলি করে হত্যা করে। এ গণহত্যায় মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল বাতেনের দাদা খোরশেদ আলমও শহীদ হন।

Share.

Leave A Reply