ভরতপুর পশ্চিমপাড়ার দেড় সড়কের বেহাল দশা

0

মাসুদ রানা : আটঘরিয়ার ভরতপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামে দীর্ঘ ১০বছর ধরে দেড় কিঃ মিঃ গ্রামীণ কাঁচারাস্তার বেহাল দশা। তবে পাঁয়ে হেঁটে চলাচলের অনুপযোগি হয়ে পড়ায় ভোগান্তিতে পড়েছে ওই গ্রামের মানুষ। এই অঞ্চলের গ্রামীণ গুরুত্বপুর্ণ রাস্তাগুলোতে এখনো উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি। যার কারণে এই অঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নের চাকা মুখ থুবড়ে পড়েছে। রাস্তার কাঁদামাটি ও পানিতে ভরপুর হওয়ায় এই এলাকার মানুষ সময় মত  ফসল ঘরে তুলতে পারছে না। বর্তমানে স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রীরা কাঁদামাটি পার হয়ে খুব কষ্ট করে বিদ্যালয়ে যেতে হচ্ছে। এমনকি পিচলে পড়ে বই খাতা  স্কুল ব্যাগ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তবে তাদের দাবি উপজেলা চেয়ারম্যানের সু-দৃষ্টি  কামনা করেছেন ভূক্তভোগি এলাকাবাসি। গতকাল সোমবার সরেজমিনে ঘুরে দেখো গেছে, চাঁদভা ইউনিয়নের ভরতপুর পশ্চিমপাড়া লালচাঁদের মোড় হতে নুরুর ভাঙ্গা মোড় পর্যন্ত দেড় কিঃ মিঃ কাঁচা রাস্তাটি দীর্ঘ ১০বছর ধরে বেহাল হয়ে পড়ে আছে। এই রাস্তা দিয়ে লক্ষণপুর, ভরতপুর, রামচন্দ্রপুর, নওদাপাড়াসহ আশপাশের প্রায় ১০ থেকে ১৫টি গ্রামের মানুষ চলাচল করে। বর্ষা মৌসুমে একটু বৃষ্টি হলেই হাটু কাঁদার জমে থাকে এই রাস্তায়। এই গ্রামের আফাজ উদ্দিন, হাজী আব্দুস কুদ্দুস, হাজী বাহা উদ্দিন ফজলুল হক জানান, আমাদের এই রাস্তাটি দীর্ঘ ১০বছর ধরে কাঁদা মাটিতে পরিণত হয়ে আছে। এই এলাকায় ব্যাপক হারে মাছ চাষ করা হয়। যার কারনে মাছ চাষিরা এই কাঁচা রাস্তা দিয়ে মাছের গাড়ী পারাপার করছে। ফলে আরও রাস্তাটি খারাপ অবস্থায় পরিণত হচ্ছে। নিবার্চন এলেই চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীরা এই রাস্তা নিয়ে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন প্রশ্রুতি দিয়ে থাকেন কিন্ত নিবার্চন শেষ হলেই তাদের আর কোনো খবর থাকে না এই রাস্তা দিকে। আমাদের গ্রামের ভিতরে এই কাঁচারাস্তাটি পায়ে হেঁটে যাওয়ার মতো কোনো উপায় নেই। বর্ষা মৌসুমে রাস্তার পানি জমে থাকার কারনে ছেলে মেয়েরা স্কুল কলেজ যেতে পারে না। এমনকি গ্রামের কোনো রোগিকে নিয়ে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। তারা আরও অভিযোগ করে বলেন, এই রাস্তার দুই পাশে কিছু অসাধু ব্যক্তিরা পুকুর খনন করে মাছ চাষ করে আসছে। ফলে রাস্তার দুই পাশ থেকে পাড় ভেঙ্গে পুকুরের মধ্যে চলে গেছে। রাস্তা আর পুকুর মিশে গিয়ে রাস্তাটির আর বেহাল দশায় সৃষ্টি হয়েছে। তবে এলাকাবাসির দাবি উপজেলা চেয়ারম্যান তানভীর ইসলাম রাস্তাটি সরেজমমিনে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার জোর দাবি জানান।

Share.

Leave A Reply