বিয়ে করাটা আমার জীবনের ভুল সিদ্ধান্ত: মধুমিতা

0

এফএনএস বিনোদন: স্টার জলসায় প্রচারিত ‘বোঝেনা সে বোঝেনা’ ধারাবাহিকে ‘পাখি’ চরিত্রে অভিনয় করে তুমুল দর্শকপ্রিয়তা লাভ করেন মধুমিতা সরকার। ২০১৯ সালের শেষের দিকে সৌরভ চক্রবর্তী-মধুমতিা সংসার জীবনের ইতি টানেন। তারপর বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে বিস্তারিত কথা বলতে দেখা যায়নি মধুমিতাকে। দীর্ঘদিন পর এই অভিনেত্রী জানালেন, বিয়ে করাটা তার জীবনের ভুল সিদ্ধান্ত ছিল। ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মধুমিতা সরকার বলেনÑ‘খুব অল্প বয়সে বিয়ে করার একটা আফসোস রয়ে গেছে। যদি তাড়াহুড়ো করে বিয়েটা না করতাম তবে ক্যারিয়ারে আরো বেশি ফোকাস করতে পারতাম। তারপরও বলব, সৌরভের সঙ্গে কাটানো মুহূর্তগুলো নিয়ে আমার কোনো আফসোস নেই, আমাদের কিছু ভালো স্মৃতি রয়েছে।’ ভালোবেসে সৌরভের সঙ্গে ঘর বেঁধেছিলেন মধুমিতা। তবু কেন ভেঙে গেলো সংসার? জবাবে এই অভিনেত্রী বলেনÑ‘হয়তো আমাদের প্রেফারেন্সটা আলাদা ছিল, সঠিক বলতে পারব না। আমি খুব রোমান্টিক মানুষ। একদম খাদের কিনারায় না চলে যাওয়া পর্যন্ত সম্পর্কটা টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করেছিলাম। এখন মনে হয় বিয়েটা ভেঙে আরো আগে বেরিয়ে আসা উচিত ছিল।’ কিছুদিন আগে সৌরভ জানান, মধুমিতার সঙ্গে তার কোনোরকম সম্পর্ক নেই। পেশাদার জায়গা থেকেও তার সঙ্গে কখনো কাজ করতে চান না। তবে সৌরভের সঙ্গে কাজ করতে আপত্তি নেই মধুমিতার। এ অভিনেত্রীর ভাষায়Ñ‘সৌরভের প্রতি যে অনুভূতিগুলো ছিল, এখন তা হারিয়ে গেছে। তাই পেশাদার অভিনেত্রী হিসেবে সৌরভের মতো একজন মারাত্মক ট্যালেন্টেড অভিনেতার সঙ্গে কাজ করতে আমার কোনো অসুবিধা হবে বলে মনে হয় না।’ ‘সবিনয় নিবেদন’ নাটকের সেটে প্রথম পরিচয় সৌরভ-মধুমিতার। এরপর তাদের মধ্যে গড়ে উঠে প্রেমের সম্পর্ক। দীর্ঘ দিন চুটিয়ে প্রেম করার পর ২০১৫ সালে সংসার পাতেন এই দম্পতি। ২০১৯ সালের শেষের দিকে বিয়ে-বিচ্ছেদের খবর জানান তারা। কয়েক দিন আগে সৌরভ জানিয়েছেন, আলাদা হয়ে গেলেও কাগজে-কলমে তারা স্বামী-স্ত্রী। করোনা সংকটের কারণে বিচ্ছেদের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে পারেননি।

Share.

Leave A Reply