নিরাপত্তা চাদরে ঢেকে গেলো ওয়াশিংটন

0

এফএনএস বিদেশ : মার্কিন পার্লামেন্ট ভবন ক্যাপিটল হিলে ট্রাম্প সমর্থকদের তা-বের পর রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে দাঙ্গা পুলিশ মাঠে নেমেছে। ওই তা-বের পর পরই সেখানে ১২ ঘণ্টার কারফিউ জারি করেছিলেন ওয়াশিংটনের মেয়র মুরিয়েল বাউজার। পরে সেই কারফিউ বাড়িয়ে অবশ্য ১৫ দিন করা হয়। খবর বিবিসির। ওয়াশিংটন ডিসির পুলিশ প্রধান জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় বুধবার রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ৫২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে চারজন অবৈধ পিস্তল এবং একজন কাছে নিষিদ্ধ অস্ত্র ছিল। আর বাকি ৪৭ জনকে কারফিউ অমান্য এবং অবৈধ অনুপ্রবেশের ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, তারা দুটি পাইপ বোমা উদ্ধার করেছে। একটি বোমা ডেমোক্রেটিক ন্যাশনাল কমিটি অফিস থেকে পাওয়া গেছে। এই অফিসটি ক্যাপিটল হিলের কাছাকাছি অবস্থিত। আরেকটি বোমা রিপাবলিকান ন্যাশনাল কমিটির সদরদপ্তরের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার বাইডেনের নির্বাচনী জয়কে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিতে কংগ্রেসে যৌথ অধিবেশন চলাকালে ক্যাপিটল হিলে ঢুকে যায় ট্রাম্প সমর্থকরা। এ সময় তারা ব্যাপক তা-ব চালায়। এ ঘটনায় চারজন নিহত হয়েছে।

হামলার পর নিন্দা জানান যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি এটিকে গণতন্ত্রের ওপর ‘নজিরবিহীন হামলা’ বলেও বর্ণনা করেছে। এ সময় তিনি এই ঘটনাকে বিক্ষোভ নয় বরং সন্ত্রাসী কার্যক্রম হিসেবেও অভিহিত করেছেন। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স এটিকে ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটলের ইতিহাসে একটি কালো দিন’ বর্ণনা করেছেন। সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এ ঘটনার জন্য ট্রাম্পকে সরাসরি দায়ী করেছেন। তিনি এই ঘটনাকে আমেরিকানদের জন্য চরম অসম্মান ও লজ্জাজনক বলেও মন্তব্য করেছেন।

Share.

Leave A Reply