ধর্মঘটে বসলেন ফ্রান্সের বক্সার

0

এফএনএস স্পোর্টস: টোকিও অলিম্পিকে রোববার হেভিওয়েট বক্সিংয়ে ব্রিটিশ প্রতিপক্ষ ফ্রেজার ক্লার্কের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনাল খেলতে নেমেছিলেন ফ্রান্সের বক্সার মৌরাদ আলিয়েভ। সেই ম্যাচে ইচ্ছাকৃতভাবে প্রতিপক্ষকে গুঁতো মারার অভিযোগে তাকে শাস্তি দেওয়া হয়। দ্বিতীয় রাউন্ড শেষ হতে তখন আর চার সেকেন্ড বাকি। ক্লার্ককে গুঁতো মারার অপরাধে আলিয়েভকে প্রতিযোগিতা থেকে বাতিল করেন রেফারি। জয়ী ঘোষণা করা হয় ইংলিশ বক্সারকে। এতে রেগে গিয়ে ধর্মঘটে বসেন আলিয়েভ! ফরাসি ব্ক্সারের আঘাতে ফ্রেজারের দুই চোখের নীচে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। তাই আলিয়েভকে বহিস্কার করেন রেফারি। কিন্তু সিদ্ধান্ত ঘোষণা হতেই প্রতিবাদ শুরু করেন ফরাসি বক্সার। রিংয়ের মাঝেই তিনি ধর্মঘটে বসে যা। এ সময় ফরাসি দলের সদস্যরা তার কাছে এগিয়ে যান। পানি পান করান। প্রায় ৩০ মিনিটের বেশি সময় পর আয়োজকরা আলিয়েভের সঙ্গে কথা বলেন। ফরাসি দলের বাকিদের সঙ্গেও আলোচনা করেন। তারপর সবাই রিং ছাড়েন। কিন্তু মিনিট ১৫ পর আবারও রিংয়ে এসে ধর্মঘটে বসেন আলিয়েভ! আরও প্রায় ১৫ মিনিট বসে থেকে তিনি রিং ছাড়েন। পরে দোভাষীর মাধ্যমে সাংবাদিকদের আলিয়েভ বলেন, ‘সিদ্ধান্তটা যে সঠিক নয় সেটার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতেই আমি এমনটা করেছি। আমি সমস্ত অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করতে চেয়েছিলাম। আমার সতীর্থরাও অন্যায়ের শিকার হয়েছে। সারা জীবন লড়াই করে এই জায়গায় এসেছি। রেফারির সিদ্ধান্তের জন্য আমি হেরে গেলাম।’01-

Share.

Leave A Reply