সাড়ে ৩ হাজার প্রবাসী আসলেও হোম কোয়ারেন্টিনে মাত্র ৬৮৮ জন স্বাস্থ্য বিভাগ বলছে বাকিরা আগেই এসেছেন

0

স্টাফ রিপোর্টার : এখন পর্যন্ত ৩ হাজার ৩শ’ জন প্রবাসী বিদেশ থেকে পাবনায় আসলেও মঙ্গলবার পর্যন্ত হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে মাত্র ৬৮৮ জনকে। বিদেশ ফেরত বাকিরা কোথায় আছে, তা নিশ্চিত হতে পারেনি জেলা প্রশাসন। এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় নতুন করে আরো ৫৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির বিশেষ সভায় জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ এ তথ্য জানান। সভায় জেলা প্রশাসক বলেন, পাবনায় এখন পর্যন্ত কোন করোনাভাইরাস রোগী সনাক্ত হয়নি। যে একজনকে করোনা সন্দেহে পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছিলো তার নেগেটিভ ফলাফল এসেছে। সবাইকে আতঙ্ক না হয়ে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। তাছাড়া প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের না হওয়ার অনুরোধ জানানো হয়। এ সময় বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শাহেদ পারভেজ, পাবনা সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি আব্দুল মতীন খান, পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান, সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদ, সাংবাদিক রিজভী জয়, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ কর্মকর্তা রেজাউল করিম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল করিম প্রমুখ। এদিকে, পাবনার সিভিল সার্জন ডাঃ মেহেদী ইকবাল জানান, পাবনায় গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ৫৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে সর্বমোট পাবনায় ৬৮৮ জন হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছে। বিদেশ ফেরত সংখ্যার চেয়ে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখার সংখ্যা কম প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সিভিল সার্জন জানান, বিদেশ ফেরত মোট মানুষের যে সংখ্যা আপনারা পেয়েছেন, তাদের বেশিরভাগই আসছে গত জানুয়ারি বা ফেব্রুয়ারি থেকে। তারা তো আক্রান্ত নন। তবে আমরা খুঁজে বের করছি শেষ গত দুই সপ্তাহে কারা বিদেশ থেকে পাবনায় এসেছে। তাদেরকেই কেবল হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হচ্ছে। আবার বিদেশ ফেরত অনেকে পাবনার বাইরে থাকে। প্রশাসনের সহযোগিতায় তাদের খুঁজে বের করা হচ্ছে। অপরদিকে, করোনা ঝুঁকি থেকে সাধারন মানুষদের রক্ষা করতে মঙ্গলবার থেকে পাবনায় সব ধরনের আবাসিক হোটেল, শপিংমল, বিপনি বিতান, মার্কেট, চায়ের দোকান বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে।

Share.

Leave A Reply