সাকিবকে ফুল দিতে মাঠে দর্শক

0

এফএনএস স্পোর্টস: ব্যাটসম্যান প্রস্তুত, বল করবেন সাকিব আল হাসান। এর মধ্যেই দৃশ্যপটে আরেকজন। গ্যালারি থেকে মাঠে নেমে গেলেন এক দর্শক। ছুটে গেলেন মাঠের মাঝে সাকিবের দিকে। স্যালুট দিয়ে নাটকীয় ভাবে বাড়িয়ে দিলেন হাতে থাকা ফুল। এরপর চাইলেন জড়িয়ে ধরতে। প্রশ্ন জাগল মাঠের নিরাপত্তা নিয়ে। আফগানিস্তান ইনিংসের ১০৭তম ওভার সেটি। দ্বিতীয় দিনে সাকিবের প্রথম ওভার। চতুর্থ ডেলিভারির আগে ওই ঘটনা। দৌড়ে সাকিবের কাছে গিয়ে স্যালুট দিয়ে হাঁটুগেড়ে ফুল বাড়িয়ে ধরলেন ওই দর্শক। সাকিব গ্রহণ করলেন উপহার। এরপরই বিপত্তি। ওই দর্শক এগিয়ে গিয়ে জড়িয়ে ধরতে চাইছিলেন। সাকিব স্বাভাবিকভাবেই চাইছিলেন এড়াতে। হাত দিয়ে ওই দর্শককে বিরত হতে বললেন তিনবার। তখনও দেখা নেই মাঠের কোনো নিরাপত্তাকর্মীর। একটু পর দেখা গেল একজন নিরাপত্তাকর্মীকে ছুটে আসতে। ততক্ষণে ওই দর্শকের বারংবার অনুরোধে সাকিব তাকে জড়িয়ে ধরেছেন কিছুক্ষণের জন্য। এরপর আরও ২-৩ জন নিরাপত্তাকর্মী এলেন। ওই দর্শককে টেনে নিয়ে গেলেন মাঠের বাইরে।  ২০১৬ সালে আফগানিস্তানের বিপক্ষেই বাংলাদেশের ওয়ানডে ম্যাচে মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে গ্র্যান্ড স্ট্যান্ড থেকে এক দর্শক ছুটে গিয়েছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজাকে জড়িয়ে ধরতে। ওই ঘটনায় তখন হইচই হয়েছিল অনেক। নিরাপত্তা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছিল ব্যাপকভাবে। পুলিশে দেওয়া হয়েছিল ওই দর্শককে। গ্যালারিতে বাড়তি বেড়া লাগানো হয়েছিল। এরপর কিছুদিন মাঠের নিরাপত্তায় একটু কড়াকড়ি ছিল। পরে আবার আলগা হয়ে পড়ে সময়ের সঙ্গে। আবার নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে গত বছর সিলেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের টেস্ট সিরিজে। মুশফিকুর রহিমকে জড়িয়ে ধরতে পরপর দুই দিন মাঠে ঢুকে যায় দর্শক। এবারও যথেষ্ট শোরগোল পড়ে। বাড়ানো হয় নিরাপত্তা। যথারীতি সময়ের সঙ্গে আবারও ঢিল পড়ে যায় নিরাপত্তায়। যেটির প্রমাণ এবারের ঘটনা। বিসিবির প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা মেজর (অব.) হোসেন ইমাম জানিয়েছেন, ওই দর্শককে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতিও চলছে। জোরদার করা হচ্ছে মাঠের নিরাপত্তা।03-

Share.

Leave A Reply