মুমিনুলের ‘১’ রানের আক্ষেপ, ইয়াসির রাব্বির ফিফটি

0

এফএনএস স্পোর্টস: সভারতে ড: কে থিম্মপায়া স্মৃতি মাল্টি অল ইন্ডিয়া ক্রিকেট টুর্নামেন্টে খেলছে বিসিবি একাদশ। মিনি রঞ্জি ট্রফি খ্যাত এই টুর্নামেন্টে গতকাল সেমিফাইনালে খেলছে মুমিনুল হকের দল। আগে ব্যাট করতে নেমে প্রথম দিন শেষে এগিয়ে বিসিবি একাদশ। ফিফটি করেছেন সাইফ হাসান, জহুরুল ইসলাম ও ইয়াসির আলী চৌধুরী রাব্বি। ফিফটির খুব কাছে যেয়েও আক্ষেপে পুড়েছেন মুমিনুল হক। গ্রুপ ‘বি’ তে থাকা বিসিবি একাদশ ১১ পয়েন্ট নিয়ে হয়েছিলো গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। ৩ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে ‘সি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ছত্তিসগড় স্টেট ক্রিকেট সংঘের সঙ্গে গতকাল সেমিফাইনালের লড়াইয়ে মাঠে নেমেছে বিসিবি একাদশ। আলুরের প্লাটিনাম ওভাল গ্রাউন্ডে টসে জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বিসিবি একাদশ অধিনায়ক মুমিনুল হক। বিসিবি একাদশের হয়ে ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে নামেন সাইফ হাসান ও জহুরুল ইসলাম। চারদিনের ম্যাচের প্রথম দিনের প্রথম সেশন নিজেদের করে নেন এই দুই ব্যাটসম্যান। লাঞ্চ বিরতির আগে ৩৪ ওভার উইকেটে থেকে কোন উইকেট হারাতে দেননি তাঁরা। ২ চার ও ৩ ছয়ে ফিফটি পূর্ণ করেন সাইফ হাসান। ১১৬ বল খেলে ৪৪.৮৩ স্ট্রাইক রেটে ৫২ রান করে অপরাজিত থেকে লাঞ্চ বিরতিতে যান বাংলাদেশ দলের এই ফিউচার স্টার। ৮৯ বল খেলে ৫ চারে ৪৬ রান করে অপরাজিত থেকে লাঞ্চ বিরতিতে গিয়েছিলেন জহুরুল ইসলাম। লাঞ্চ বিরতির পর ১৩৪ বলে ৭ চারে ৬০ রান করে বিনি স্যামুয়েলের বলে বোল্ড হন জহুরুল। আউট না হয়েও সাজঘরে ফিরেছেন সাইফ হাসান। ১৭২ বলে ৬ চার ও ৫ ছয়ে ৯২ রান করার পর আহত হয়ে মাঠ ছেড়েছেন তিনি। এরপর মুমিনুল হক ও ইয়াসির আলী চৌধুরীর জুটি জমে বেশ। দিনের শেষ ভাগে এসে ফিফটি থেকে ১ রান দূরে থেকে আউট হন মুমিনুল হক। ৯৩ বলে ৬ চারে ৪৯ রান করেন তিনি। নাইটওয়াচম্যান হিসাবে নেমে কোন রান না করে ফেরেন সানজামুল ইসলাম। প্রথম দিনে মোট খেলা হয়েছে ৮৫.১ ওভার। ৩ উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ২৫৪ রান তুলেছে বিসিবি একাদশ। ১০৩ বল খেলে ৬ চারে ৫০ রান করে অপরাজিত আছেন ইয়াসির আলী রাব্বি, ৩ বল খেলে কোন রান না করে অপরাজিত আছেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

সংক্ষিপ্ত স্কোর (১ম দিন শেষে)-

বিসিবি একাদশ ৮৫.১ ওভারে ২৫৪/৩, জহুরুল ৬০, সাইফ ৯২ (রিটায়ার্ড হার্ট), মুমিনুল ৪৯, রাব্বি ৫০*, সানজামুল ০, শান্ত ০*।

Share.

Leave A Reply