বোয়িং ৭৭৭ সিরিজের বিমান না চালানোর সিদ্ধান্ত

0

এফএনএস বিদেশ : রানওয়ে থেকে উড্ডয়নের কিছু সময় পর নিজেদের একটি বোয়িং ৭৭৭ উড়োজাহাজের ইঞ্জিন অচল হয়ে পড়ার ঘটনায় একই রকম ইঞ্জিন আছে এমন ২৪টি বিমানের উড্ডয়ন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স। শনিবার হনুলুলগামী তাদের ফ্লাইট ৩২৮ টেক-অফের কিছু সময় পর ডেনভার বিমানবন্দরে ফিরে আসতে বাধ্য হয়। বিমানে সেসময় ২৩১ যাত্রী ও ১০ ক্রু থাকলেও কারও আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। বিমানবন্দরের কাছাকাছি একটি আবাসিক এলাকায় ছড়ানো ছিটানো অবস্থায় ইঞ্জিন অচল হয়ে পড়া জেটটির যন্ত্রাংশও পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। এ ঘটনার পরপরই জাপান প্র্যাট অ্যান্ড হুইটনি ৪০০০ ইঞ্জিন ব্যবহার করে এমন সব বোয়িং ৭৭৭ বিমানকে তাদের আকাশসীমা এড়িয়ে চলতে বলেছে।  বোয়িং জানিয়েছে তারা জাপানের এ সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানাচ্ছে; শনিবারের ঘটনার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত একই ইঞ্জিনের সব ৭৭৭ বিমানের চলাচল স্থগিত রাখারও পরামর্শ দিয়েছে তারা। বিমান নির্মাতা এ প্রতিষ্ঠান বলছে, বিশ্বজুড়ে এখন তাদের ৬৯টি বোয়িং ৭৭৭ এ প্র্যাট অ্যান্ড হুইটনি ৪০০০ ইঞ্জিন আছে। মার্কিন ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফএএ) তথ্য অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে কেবল ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সেরই এ ধরনের বোয়িং আছে। এর বাইরে জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার বিভিন্ন এয়ারলাইন্সের কিছু বোয়িংয়ে এই ইঞ্জিন আছে। শনিবার ডেনভারে ইউনাইটেডের বিমানটির ডানদিকের ইঞ্জিনটি অচল হয়ে পড়েছিল বলে জানিয়েছে এফএএ। বেশ কিছু ছবিতে মাঝ আকাশে থাকা অবস্থায় বিমানটির ডানদিকের পাখার নিচের অংশে আগুন দেখা গেছে। এফএএ পরে যেসব বোয়িং ৭৭৭ এ প্র্যাট অ্যান্ড হুইটনি ৪০০০ ইঞ্জিন আছে, সেগুলো পরীক্ষা নিরীক্ষায় অতিরিক্ত তদন্ত করারও নির্দেশ দিয়েছে। ডানদিকের ইঞ্জিন ও পাখার বেশ কয়েকটি ব্লেড ক্ষতিগ্রস্ত হলেও বিমানটির মূল অংশের তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি, প্রাথমিক অনুসন্ধানের পর জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্টেশন সেইফটি বোর্ড।01-

Share.

Leave A Reply