নতুন করোনা শনাক্ত ৩৮৬৮ জনের, মৃত্যু ৪০ জনের

0

এফএনএস: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩ হাজার ৮৬৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। একই সময় করোনায় মারা গেছেন ৪০ জন। দেশে করোনার সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানানো হয়। সব মিলিয়ে দেশে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ লাখ ৩০ হাজার ৪৭৪ জনের। মোট মারা গেছেন ১ হাজার ৬৬১ জন। ব্রিফিংয়ে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬৩৮ জন জন। সব মিলিয়ে সুস্থ ৫৩ হাজার ১৩৩ জন। গত বৃহস্পতিবার দেশে করোনায় ৩ হাজার ৯৪৬ জনের জন শনাক্ত হওয়ার কথা জানানো হয়েছিল। মারা গিয়েছিলেন ৩৯ জন। ব্রিফিংয়ের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮ হাজার ৪৯৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা ৬৬টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার তথ্য তুলে ধরে বলেন, করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮ হাজার ২৭৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১৮ হাজার ৪৯৮টি। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ছয় লাখ ৯৬হাজার ৯৪১টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে আরও ৩ হাজার ৮৬৮ জনের মধ্যে। শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৯১ শতাংশ। ফলে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল এক লাখ ৩০ হাজার ৪৭৪ জনে। ডা. নাসিমা জানান, নতুন করে যে ৪০ জন মারা গেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ৩১ জন ও নারী ৯জন। এ নিয়ে কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে দেশে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৬৬১ জন। শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যু হার ১ দশমিক ২৭ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ১ হাজার ৬৩৮ জন। সব মিলিয়ে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা এখন ৫৩ হাজার ১৩৩জন। সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৭২শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণকারী ৪০ জনের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়- ১ থেকে ১০ বছরের ১ জন, ত্রিশোর্ধ্ব ৩ জন, চল্লিশোর্ধ্ব ৬ জন, পঞ্চাশোর্ধ্ব ১২ জন, ষাটোর্ধ্ব ১৪ জন, সত্তরোর্ধ্ব ৩ জন, আশি বছরের বেশি বয়সী ১ জন রয়েছেন। তাদের মধ্যে ১৪ জন ঢাকা বিভাগের, ১২ জন চট্টগ্রাম বিভাগের, ৩ জন সিলেট বিভাগের, ৪ জন খুলনা বিভাগের, বরিশাল বিভাগের ৪ জন ও রংপুরে বিভাগের ৩ জন রয়েছেন। যে ৪০ জন মারা গেছেন তাদের মধ্যে ৩১ জন হাসপাতালে এবং ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে বাসায়। এদিকে সারাদেশে করোনা রোগীদের জন্য নির্ধারিত হাসপাতালগুলোতে সাধারণ শয্যা রয়েছে ১৪ হাজার ৬১০টি এবং নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র (আইসিইউ) ৩৭৯টি। এর মধ্যে সাধারণ শয্যায় করোনা রোগী ভর্তি আছেন ৪ হাজার ৬৯১ জন এবং ফাঁকা রয়েছে ৯৯১৯টি। এদিকে আইসিইউতে ভর্তি আছেন ১৮৩ জন এবং আইসিইউ বেড খালি রয়েছে ১৯৬টি। ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, ঢাকা মহানগরীতে করোনার জন্য হাসপাতাল আছে ১৬টি এবং ঢাকা জেলায় একটি। ঢাকা মহানগরীতে করোনা রোগীদের জন্য সাধারণ শয্যা সংখ্যা ৬ হাজার ৭৭৩টি এবং আইসিইউ শয্যা ১৮০টি। সাধারণ শয্যায় ভর্তি আছেন ২ হাজার ৩৭৫ জন এবং আইসিইউতে ভর্তি আছেন ৯৭ জন করোনা রোগী। রাজধানীসহ সব বিভাগ মিলে সাধারণ শয্যা সংখ্যা ১৪ হাজার ৬১০টি এবং মোট আইসিইউ ৩৭৯টি। রাজধানীসহ দেশে করোনা হাসপাতালগুলোতে রোগী ভর্তি আছেন ৪ হাজার ৬৯১ জন এবং আইসিইউ শয্যায় ভর্তি আছে ১৮৩ জন। নাসিমা সুলতানা আরও বলেন, করোনার জন্য নির্ধারিত সব হাসপাতালেই রোগী ভর্তি হতে পারবেন। কারণ অনেক শয্যা খালি আছে। সব হাসপাতালে অক্সিজেন সিলিন্ডার আছে মোট ১০ হাজার ২৪০টি, হাই ফ্লো নেজাল ক্যানেলা ৮০টি এবং অক্সিজেন কনসেনট্রেটর ৫৫টি। স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধের উপায় হলো মাস্ক পরা, বারবার সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়া, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং জনসমাবেশ এড়িয়ে চলা। এইসব ধাপ আমাদের একসঙ্গে পালন করতে হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) বারবার এ বিষয়ে আমাদের সতর্ক করছে। তারা বলছে, আমরা যদি এই নিয়মগুলো না মানি, তাহলে করোনাভাইরাস আরও অনেক বেশি বেড়ে যেতে পারে। পরিস্থিতি আরও মারাত্মক হতে পারে। আমরা আর মারাত্মকের দিকে যেতে চাই না। আপনারা সবাই সহযোগিতা করুন। নাসিমা সুলতানা বলেন, ইতোমধ্যে আমরা অনেককেই হারিয়েছি করোনার কারণে। আমরা চাই না, আর কেউ আমাদের মধ্য থেকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে হারিয়ে যান। যারা হারিয়ে গেছেন, তাদের মধ্যে অনেক প্রতিথযশা, স্বনামধন্য ব্যক্তি এবং অনেক ফ্রন্টলাইন যোদ্ধারা রয়েছেন। ফ্রন্টলাইনের যোদ্ধাদের মধ্যে চিকিৎসক, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, প্রশাসনের সদস্য, বিচার বিভাগের সদস্য। সবাই যে যার অবস্থান থেকে কাজ করে যাচ্ছেন এবং সাধারণ মানুষ এই যুদ্ধের সঙ্গে শামিল হয়েছেন। যারা এই যুদ্ধে শামিল সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। গত ডিসেম্বরে চীনের উহান শহর থেকে ছড়ানো করোনাভাইরাস গোটা বিশ্বকে বিপর্যস্ত করে দিয়েছে। বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৩ লাখ ৬৯ হাজার ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা চার লাখ ৮০ হাজারের বেশি। তবে ৫০ লাখ ৬০ হাজারের বেশি রোগী ইতোমধ্যে সুস্থ হয়েছেন। বাংলাদেশে করোনাভাইরাস প্রথম শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ।

Share.

Leave A Reply