চুক্তির কাছাকাছি’যুক্তরাষ্ট্র-তালেবান, লড়াই অব্যাহত

0

এফএনএস বিদেশ : আফগানিস্তানে শান্তি প্রক্রিয়ার পথ উন্মোচনে যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবান প্রতিনিধিদল চুক্তির খুব কাছাকাছি অবস্থান করছে বলে এক শীর্ষ মার্কিন কর্মকর্তার দাবি করেছেন।এর মধ্যেই গত রোববার তালেবান বিদ্রোহীরা কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র কুন্দুজের পর উত্তর আফগানিস্তানের দ্বিতীয় আরেকটি শহরে হামলা চালিয়েছে।চুক্তি নিয়ে চলতি সপ্তাহে কাতারের দোহায় ওয়াশিংটনের সঙ্গে তালেবানদের নবম দফার বৈঠকের মধ্যেই উত্তর আফগানিস্তানে সরকারি বাহিনীগুলোর ওপর বিদ্রোহীদের হামলার তীব্রতা বাড়ছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।দোহা বৈঠকের অগ্রগতি নিয়ে কথা জানাতে গত রোববার সন্ধ্যায় টুইটারে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল যাওয়ার কথা জানিয়েছিলেন ওয়াশিংটনের হয়ে মধ্যস্থতা দেখভালকারী আফগান বংশোদ্ভূত মার্কিন কূটনীতিক জালমে খলিলজাদ। টুইটে তিনি বলেছেন, “আমরা একটি চুক্তির দোরগোড়ায় অবস্থান করছি, যা সহিংসতা কমাবে এবং আফগানদের সবাইকে সম্মানজনক ও টেকসই শান্তি চুক্তি নিয়ে আলোচনায় একসঙ্গে বসার দ্বার খুলে দিয়ে এমন একটি ঐক্যবদ্ধ ও সার্বভৌম আফগানিস্তান গড়ে তুলবে যা যুক্তরাষ্ট্র, এর মিত্র অথবা অন্য কোনো দেশের জন্য হুমকি হবে না।”খলিলজাদ দুই পক্ষের চুক্তির সম্ভাবনা নিয়ে যখন এ মন্তব্য করছিলেন, ওই সময়ই উত্তরাঞ্চলীয় বাঘলান প্রদেশের গুরুত্বপূর্ণ শহর পুল-ই খুমরিতে তালেবান বিদ্রোহীরা হামলা চালাচ্ছিল।পুল-ই খুমরিতে হামলার আগেরদিন শনিবার কুন্দুজে বিদ্রোহীরা বড় ধরনের শক্তির প্রদর্শনী দেখিয়েছিল।কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ এ শহরে এ সংঘাতে আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর ২০ সদস্য ও ৫ বেসামরিক নিহত এবং অন্তত ৮৫ বেসামরিক ব্যক্তি আহত হন বলে রোববার জানিয়েছে আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।নিরাপত্তা বাহিনীর সাঁড়াশি অভিযানে কুন্দুজ ‘শত্রমুক্ত’ হলেও বিদ্রোহীরা পরে পুল-ই খুমরির দুটি এলাকার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধ চালিয়ে যায় বলে জানান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাসরাত রাহিমি।পুল-ই খুমরিতে আফগান বাহিনী ৫ বন্দুকধারীকে হত্যা ও দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।“শহরের গভর্নরের কম্পাউন্ড ও পুলিশ সদরদপ্তরের কাছে এখনও তালেবানের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর যুদ্ধ চলছে,” টেলিফোনে এমনটাই জানিয়েছেন পুল-ই খুমরির বাসিন্দা আবদুল জামিল। এর পাশাপাশি মধ্যাঞ্চলীয় প্রদেশ গজনি ও কাবুলের পূর্ব দিককার লাগমান প্রদেশেও দুই পক্ষের মধ্যে যুদ্ধ অব্যাহত আছে বলে তালেবানদের পাশাপাশি সরকারি কর্মকর্তারাও নিশ্চিত করেছেন।খেলার মাঠে বোমা বিস্ফোরণে প্রাণ হারিয়েছেন উত্তরাঞ্চলীয় শহর ফায়জাবাদের এক মেয়র; উত্তরের বাখ প্রদেশে রাস্তার পাশে রাখা বোমায় নারী-শিশুসহ একটি গাড়ির ৮ জন নিহত হয়েছেন।পশ্চিমাঞ্চলীয় ফারাহ প্রদেশে রাস্তার পাশে থাকা আরেক বোমায় দুই নারী, ৪ শিশু ও ২ পুলিশ সদস্যের প্রাণ গেছে বলে স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।উত্তর পশ্চিম সীমান্তের ফারিয়াব প্রদেশের কর্মকর্তারা বিমান হামলায় ৮শিশুসহ ১২ বেসামরিক ব্যক্তির নিহত হওয়ার খবর দিলেও আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় তা অস্বীকার করেছে।

Share.

Leave A Reply