কোনো উত্তাপ নেই ঈদের ছবি নিয়ে

0

এফএনএস বিনোদন: ঈদের ছবি নিয়ে ঢালিউডের ফিল্ম পাড়াখ্যাত কাকরাইলে নেই কোনো উত্তাপ। সিনেমা হল মালিকদের কথাতেও রয়েছে হতাশার ছাপ। একটা সময় ঈদে ছবি মুক্তির এক মাস আগে থেকে কাকরাইল সিনেমা হল মালিকদের আনাগোনায় থাকতো সরগরম। এখন আগের মতো সিনেমার পোস্টার ব্যানারের জৌলুস নেই বললেই চলে। হল মালিকদের মুখে কয়েক বছর আগেও আনন্দের হাসি দেখা যেত। কারণ ঈদের ছবি মানেই ছিল সুপারহিট ব্যবসা। সারা দেশ থেকে হল মালিকরা ছবি নেওয়ার জন্য আগাম টাকাও বুকিং দিতেন। বুকিং এজেন্ট সমিতি থেকে খবর নিলে জানা যায়, এবারের ঈদে ছবি নিয়ে তেমন কোনো আগ্রহ নেই সিনেমা হল মালিকদের।

এবার শুধু শাকিব খান ও বুবলী অভিনীত এবং জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ ছবিটি নেওয়ার জন্য বেশ কয়েকজন হল মালিক বুকিং দিয়েছেন। এরপর তাদের আগ্রহের তালিকায় রয়েছে জাজ মাল্টিমিডিয়ার প্রযোজনায় ‘বেপরোয়া’ ছবিটি। এবারের কোরবানি ঈদে তিনটি ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে। শাকিব-বুবলীর ছবির বাইরে বাকি ছবি দুটি হচ্ছে ভারতের রাজা চন্দের পরিচালনায় ‘বেপরোয়া’ এবং বাংলাদেশের বশির আহমেদ পরিচালিত ‘ভালোবাসার জ¦ালা’। ‘বেপরোয়া’ ছবিতে ববি ও  রোশান অভিনয় করেছেন। ‘ভালোবাসার জ¦ালা’ ছবিতে অভিনয় করেছেন শাকিল-অর্পা। ছবি সংকটের কারণে গেল রোজার ঈদে ‘পাসওয়ার্ড’ (শাকিব-বুবলী), ‘নোলক’ (শাকিব-ববি) এবং ‘আবার বসন্ত’ (তারিক আনাম-স্পর্শিয়া) নামের ছবিগুলো মুক্তি পেয়েছিল। কোরবানির ঈদেও ছবি সংকটের কথা জানালেন প্রদর্শক সমিতির সভাপতি ও মধুমিতা সিনেমা হলের কর্ণধার ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ। তিনি বলেন, ঈদে আমরা শাকিব খান অভিনীত ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ ছবিটি আমাদের প্রেক্ষাগৃহে চালাবো। তবে দিনে দিনে ঈদের ছবি নিয়েও হল মালিকরা সংকটে রয়েছেন। কারণ ছবির ব্যবসা নিয়ে বেশ শঙ্কিত তারা। দেশীয় চলচ্চিত্রের সেই রমরমা ব্যবসা এখন আর নেই। তাই নতুন ছবি নিলেও ব্যবসা নিয়ে শঙ্কায় থাকতে হয়। এত কিছুর মধ্যে শাকিব ও বুবলীর ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ ছবিটি নিয়ে আমি আশাবাদী। বলাকা সিনেমা হলের ব্যবস্থাপক এস এম শাহীন বলেন, গত রোজার ঈদে ‘আবার বসন্ত’ ছবিটি চালিয়েছিলাম। এবার ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ ছবিটি ঈদে বলাকায় চলবে। জাকির হোসেন রাজুর ছবিতে পারিবারিক বিষয়বস্তু থাকে। আর পরিচালক হিসেবে তার একটা নাম আছে। তাই ছবিটি নিয়েছি আমরা। এখন দর্শকের রায় কেমন হবে তা দেখার পালা। ব্যবসা হতেও পারে নাও পারে। বলা যায় ফিফটি ফিফটি চান্স হিসেবে নিয়েছি এ ছবিটি। তিনি আরো বলেন, সিনেমা হল মালিকদের  মনে এবার ঈদের ছবি নিয়ে তেমন কোনো আনন্দ নেই। আগে ঈদের ছবির মান ও মুক্তি নিয়ে রীতিমতো প্রতিযোগিতা চলতো নির্মাতাদের মধ্যে। ঈদে মুক্তির জন্য নির্মাণ হতো বেশকিছু ছবি। যা এখন নেই বললেই চলে। এবার ঈদে তিনটি ছবি মুক্তি পেলেও আমাদের হিসেবে ঈদের ছবি দুটি। একটি হচ্ছে ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ এবং অন্যটি ‘বেপরোয়া’। কারণ ‘ভালোবাসার জ¦ালা’ নামে যে আরেকটি ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা রযেছে সে ছবিকে ঈদের ছবি বলা যায় না। এটা যেকোনো সময়ই মুক্তি পাওয়ার মতো ছবি। তাই ‘ভালোবাসার জ¦ালা’ ছবিটি ঈদে কোন কোন সিনেমা হলে চলবে তা নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্বে রয়েছে সিনেমা হল মালিক ও বুকিং এজেন্টরা। এদিকে বেশ কয়েকজন সিনেমা হল মালিকের সঙ্গে কথা হলে তারা সকলেই একইরকম ভাবে  বলেন, দর্শকদের ঈদের ছবি দেখার জন্য প্রচারণা দিয়ে আগ্রহী করতে হয়। প্রচারণা এখন অনেক কম। অনেক মানুষ তো জানেই না ঈদে কোন ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে। নব্বইয়ের দশকেও পত্রিকা, টিভি, পোস্টার, ব্যানারসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ছবির প্রচারণা ছিল। যা এখন নেই বললেই চলে।

Share.

Leave A Reply