কর্নাটকের পর এবার ভারতের রাজধানীতে করোনায় বৃদ্ধার মৃত্যু

0

এফএনএস বিদেশ :  ভারতের কর্নাটকে ৭৬ বছর বয়সী এক ব্যক্তির পর করোনাভাইরাসে দেশটির রাজধানী দিল্লির জনকপুরীর প্রীতি সুদন (৬৮) নামে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। গত শুক্রবার দিল্লির রামমনোহর লোহিয়া হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। তার ছেলে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ইউরোপ থেকে ফিরেছিলেন। ছেলের থেকেই রোগ সংক্রমিত হয় মায়ের। বৃদ্ধার ছেলেও হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এনডিটিভি এ তথ্য জানিয়েছে। এনডিটিভি জানায়, নিহত ওই বৃদ্ধার ছেলে সুইজারল্যান্ড ও ইতালি ভ্রমণ করেছিলেন। বিদেশ সফর থেকে ফিরে এসে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ছেলে। তার সংস্পর্শে ওই বৃদ্ধাও সংক্রামিত হয়েছিলেন করোনা ভাইরাসে। যদিও প্রথমদিকে তার ছেলের কোনো সংক্রমণের লক্ষণ দেখা যায়নি। ৭ মার্চ জ¦র ও কাশি নিয়ে দিল্লির রামমনোহর লোহিয়া হাসপাতালে রিপোর্ট করেছিলেন ছেলে। প্রোটোকল অনুসারে, পরিবারটিকে ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে ওই বৃদ্ধার শরীরেও করোনাভাইরাসের লক্ষণ পাওয়া যায়। ৯ মার্চ ওই বৃদ্ধার অবস্থা আরও খারাপ হয়। পরে তাকে নিবিড় পরিচর্যা ইউনিট বা আইসিইউতে স্থানান্তরিত করা হয়। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, দিল্লিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে তিনি ষষ্ঠ রোগী ছিলেন। এর আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ভারতে প্রথম মৃত্যু হয় কর্নাটকের ৭৬ বছর বয়সী এক ব্যক্তির। কর্নাটকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বি শ্রীরামুল্লু জানান, গত ২৯ ফেব্রুয়ারি সৌদি আরব থেকে কর্নাটকের ওই ব্যক্তি দেশে ফেরেন। পরে হায়দরাবাদ বিমানবন্দরে তার পরীক্ষা করা হয়। তবে সে সময় কোনো লক্ষণ ছিল না তার শরীরে। শ্বাসকষ্ট ও উচ্চরক্তচাপের কারণে গত ৫ মার্চ তিনি কালবুর্গির একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তার শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, ইতিমধ্যেই ৭৩ জন ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে রাজধানীতে করোনায় মৃত্যুর ঘটনা আশঙ্কা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে।

 

Share.

Leave A Reply