কক্সবাজারে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ৪ রোহিঙ্গা নিহত

0

এফএনএস: কক্সবাজারের গহীন পাহাড়ে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে চার রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে; তারা একটি ডাকাত দলের সদস্য বলছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে বিকাল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত টেকনাফ ও উখিয়ায় পুলিশের সাড়াশি অভিযানের সময় এ গোলাগুলির পর সেখান থেকে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারও করেছে পুলিশ। নিহতদের মধ্যে দুই জন ‘দুর্ধর্ষ রোহিঙ্গা ডাকাত’ আবদুল হাকিমের ভাই এবং অন্য দুইজন তার সহযোগী বলছে পুলিশ। নিহতরা হলেন, আবদুল হাকিমের ভাই বশির আহমদ ও হামিদ হোসেন এবং তার দলের সদস্য মোহাম্মদ রফিক ও মোহাম্মদ রাঙ্গাইয়া। কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন জানিয়েছেন, গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে বিকাল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের চাকমা পাড়া এবং উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়নের মনতলীর গহীন পাহাড়ে সাড়াশি অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় গোলাগুলিতে ওই চারচন নিহত হন। ইকবাল বলেন, গতকাল শুক্রবার সকালে উখিয়া ও টেকনাফ সীমান্তের গহীন পাহাড়ী এলাকায় সশস্ত্র ডাকাতদলের সদস্যরা অবস্থান করছে খবর পেয়ে পুলিশের দুইটি দল টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের চাকমা পাড়া এবং উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়নের মনতলীর গহীন পাহাড়ে অভিযান চালায়। একপর্যায়ে বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে জালিয়াপালংয়ের মনতলী পাহাড়ী এলাকায় পুলিশকে লক্ষ্য করে ডাকাতদলের সদস্যরা গুলি ছুড়তে শুরু করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে গোলাগুলি থেমে গেলে ঘটনাস্থলে চারজনের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ পাওয়া যায়। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ৪০ হাজার ইয়াবা, চারটি দেশে তৈরি বন্দুক এবং ২০টি গুলি পাওয়া যায় বলে জানান তিনি। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, বিকালে নিহতদের লাশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে উখিয়া থানা আনা হয়। সেখান থেকে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ইকবাল।

Share.

Leave A Reply