উইলিয়ামসন বাংলাদেশে খেলাটা উপভোগ করেন

0

এফএনএস স্পোর্টস: এই তো বছর দশেক আগের কথা। ২০১০ সালে ১৯ বছর বয়সী তরুণ ব্যাটসম্যান কেন উইলিয়ামসনকে নিয়ে বাংলাদেশ সফরে এসেছিল নিউজিল্যান্ড। ঢাকায় আসার আগে মাত্র চারটি ওয়ানডে খেলেছিলেন উইলিয়ামসন। বাংলাদেশ সফরে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে একাদশে সুযোগ পান তিনি। বাংলাদেশের মাটিতে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেই সেঞ্চুরি (১০৮) তুলে নেন। ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির সেই স্মৃতি এখনো তরতাজা উইলিয়ামসনের মনে। যদিও এক প্রান্ত আগলে করা তার একার লড়াইয়ে সেই ম্যাচে শেষ রক্ষা হয়নি ব্ল্যাক ক্যাপসদের। ঐ সিরিজে নিউজিল্যান্ডকে প্রথমবার হোয়াইটওয়াশ করেছিল বাংলাদেশ। গত ১০ বছরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ক্রমাগত উঁচুতে উঠেছেন উইলিয়ামসন। তিন ফরম্যাটে ৩৪ সেঞ্চুরির মালিক তিনি। সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে বিবেচনা করা হয় তাকে। এখন নিউজিল্যান্ডকেও নেতৃত্ব দিচ্ছেন। ২৯ বছর বয়সী এই কিউই ক্রিকেটার তামিম ইকবালের ফেসবুক লাইভের অতিথি ছিলেন। তামিমের সঙ্গে আড্ডায় তিনি স্মরণ করেছেন নিজের প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরির সময়কে। গরমে বারবারই মাসল ক্র্যাম্প করছিল, তার মাঝেই লড়াই করে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন। ঐ সেঞ্চুরির পাশাপাশি হোম কন্ডিশনে বাংলাদেশ দলের দাপট, গ্যালারি ভরা দর্শকদের হর্ষধ্বনি ভুলেননি উইলিয়ামসন। বলেছেন, এমন দর্শকদের বিরুদ্ধে খেলার মজাই আলাদা। যা উপভোগ করেন তিনি। ভবিষ্যতে সময় পেলে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগেও (বিপিএল) খেলতে আগ্রহী নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটে ব্রেন্ডন ম্যাককালামের প্রভাব, ব্যাটসম্যান হিসেবে তার প্রস্তুতি, ২০১৫ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে জয়, ২০১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালে ট্র্যাজিক হার নিয়ে কথা বলেছেন উইলিয়ামসন। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়াম তার কাছে বিশেষ ভেন্যু। এখানেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেঞ্চুরির খাতা খুলেছিলেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। তামিম প্রথম সেঞ্চুরির কথা মনে করিয়ে দিতেই স্মৃতির সাগরে ডুব দেওয়া উইলিয়ামসন বলেছেন, ‘হ্যাঁ, প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরি। তরতাজা অভিজ্ঞতা। যতটা মনে পড়ে অনেক গরম ছিল, আমার অনেক ক্র্যাম্প হয়েছিল। আমার মনে পড়ে এই ম্যাচে বুঝতে পেরেছিলাম, পেশাদার ক্রিকেটারদের ঠিকমতো খেতে হবে, পানি পান করা দরকার যাতে এসব কাটিয়ে উঠতে পারে। খুব কঠিন সফর ছিল। তোমরা অসাধারণ খেলেছ বিশেষ করে হোম কন্ডিশনে এবং যে সমর্থন তোমরা পাও, তার বিরুদ্ধে খেলা আসলেই সত্যিকারের মজা।’ আইপিএলে নিয়মিতই খেলেন উইলিয়ামসন। কিন্তু বিপিএলে পা পড়েনি তারা। সময় বের করতে পারলে বিপিএলেও খেলতে আগ্রহী তিনি। উইলিয়ামসন বলেছেন, ‘আমি খুবই আগ্রহী। সময় বের করতে পারলে আমি অবশ্যই চাইব বিপিএল খেলতে। এখানে দারুণ প্রতিযোগিতা হয়। অনেক ভালো কিছু বিষয় আছে এই টুর্নামেন্টের। দেখা যাক কী হয়।’

Share.

Leave A Reply