ইস্তাম্বুলে রানওয়ে থেকে ছিটকে বিমান তিন টুকরা হয়ে নিহত ৩

0

এফএনএস বিদেশ : তুরস্কের ইস্তাম্বুলে অবতরণের সময় যাত্রীবাহী একটি বিমান রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে তিন জন নিহত ও ১৭০ জনেরও বেশি আহত হয়েছে বলে দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। বুধবারের এ দুর্ঘটনায় রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়া পেগাসাস এয়ারলাইন্সের বিমানটি তিন টুকরা হয়ে যায় বলে জানিয়েছে বিবিসি। ইজমির থেকে ১৭১ যাত্রী ও ৬ ক্রু নিয়ে রওনা দেওয়া এ বোয়িং ৭৩৭ বিমানটি ইস্তাম্বুলের সাবিহা গোকেন বিমানবন্দরে অবতরণের সময় তীব্র বাতাস ও বৃষ্টির মুখে পড়েছিল। দুর্ঘটনার পরপরই বিমানবন্দরটি সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়। বিমানটিতে থাকা যাত্রীদের বেশিরভাগই তুরস্কের নাগরিক হলেও আসা ফ্লাইট রেকর্ডের তথ্যে বিমানটিতে অন্য ১২টি দেশের অন্তত ২২ যাত্রী ছিলেন বলে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে।

বোয়িংয়ের এ ৭৩৭ বিমানটিতে কয়েকটি শিশু ছিল বলেও ধারণা করা হচ্ছে। “দুর্ভাগ্যজনকভাবে, খারাপ আবহাওয়ার কারণে পেগাসাসের বিমানটি রানওয়েতে থামতে পারেনি, ছিটকে ৫০-৬০ মিটার দূরে চলে যায়,” বলেছেন ইস্তাম্বুলের গভর্নর আলি ইয়েরলিকায়া। ভিডিও ফুটেজে বিমানটির পাখার কাছে সৃষ্ট একটি বড় গর্ত দিয়ে যাত্রীদের বেরিয়ে আসতে দেখা গেছে, এ সময় তাদের আশপাশে কয়েক ডজন উদ্ধারকর্মীও ছিলেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া অন্য একটি ফুটেজে বিমানটির ভেতরে আগুন জ¦লতে দেখা গেলেও দমকলকর্মীরা পরে ওই আগুন নিভিয়ে ফেলেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। দুর্ঘটনার তদন্ত চলছে। তুরস্কের যোগাযোগ মন্ত্রী মেহমেদ সাহিত তুরান বলেছেন, কর্তৃপক্ষ এখনও দুর্ঘটনা সম্বন্ধে বিমানচালকদের সঙ্গে কথা বলতে পারেনি। চালকদের একজন তুরস্কের নাগরিক, অপরজন দক্ষিণ কোরিয়ার। তারা দুজনই দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন বলে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহ থেকে আসা পেগাসাসের আরেকটি বিমানও গত মাসে ইস্তাম্বুলের এ বিমানবন্দরের রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়েছিল। এর আগে একই প্রতিষ্ঠানের অন্য একটি বিমান গত বছরের জানুয়ারিতে তুরস্কের ত্রাবজোন বিমানবন্দরের রানওয়ে থেকে ছিটকে সাগর থেকে মাত্র কয়েক ফুট উপরে ঝুলে ছিল। দুটো ঘটনাতেই কেউ প্রাণ না হারালেও বিমানবন্দরগুলোকে সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ রাখতে হয়েছিল।

Share.

Leave A Reply