ইরান-যুক্তরাষ্ট্র দ্বন্দ্ব নিরসনে মধ্যস্থতা করবেন ইমরান

0

এফএনএস বিদেশ : পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান মঙ্গলবার বলেছেন, ইরানের সঙ্গে দ্বন্দ্ব নিরসনের জন্য তাকে মধ্যস্থতাকারী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্পের প্রস্তাবের পর মধ্যস্থতা করার পদক্ষেপ হিসেবে ইতোমধ্যেই ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি। নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪ তম অধিবেশন চলাকালীন এক সংবাদ সম্মেলনে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘গতকাল প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের পর আমি অতিদ্রুত ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে বৈঠক করেছি। আমি এখনই এ নিয়ে কিছু বলতে পারবো না। আমরা চেষ্টা করছি।’ গত বছরের মে থেকে তেহরান আর ওয়াশিংটনের মধ্যে উত্তেজনা চরমে। ২০১৫ সালে ওবামা প্রশাসন বিশ্বের ক্ষমতাধর ছয় দেশকে নিয়ে ইরানের সঙ্গে যে পারমাণবিক কর্মসূচি বিষয়ক চুক্তি করেন তা থেকে ট্রাম্প গত বছর যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে ইরানে ফের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করলে এ উত্তেজনার সূত্রপাত। সম্প্রতি সৌদি আরবের রাষ্ট্রায়ত্ত দুটি তেল স্থাপনায় হামলার পর উত্তেজনা আরও বেড়েছে। ইয়েমেনে সৌদি জোটের সঙ্গে যুদ্ধরত হুথি বিদ্রোহীগোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করে। তবে যুক্তরাষ্ট্র বলছে, হামলার নেপথ্যে আছে ইরান। সৌদি জানিয়েছে ইরান হামলা করেছে তার প্রমাণ পেলে প্রতিশোধ নেয়া হবে। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দেয়ার আগে দুই দিনের সফরে সৌদিতে ছিলেন ইমরান খান। যেখানে তিনি সৌদি আরবের ‘প্রকৃত’ নেতা যুবরাজ সালমানের সঙ্গে বৈঠক করেন। ইমরান জানিয়েছেন, যুবরাজ সালমানও তাকে রুহানির সঙ্গে কথা বলার জন্য বলেছেন। ইরানের সঙ্গে দ্বন্দ্ব নিরসনে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব দিয়েছেন কিনা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘তিনি (ইমরান খান) মধ্যস্ততা করতে চান। আমাদের সম্পর্ক খুব ভালো এবং তাই এমনটা ঘটার সুযোগ রয়েছে।’ ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি তো এখন নিউইয়র্কেই অবস্থান করছেন তাহলে তার সঙ্গে আপনার বৈঠকের কোনো সম্ভাবনা আছে কিনা ট্রাম্পকে ফের এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘অনেকেই চান আমরা বৈঠক করি কিন্তু আমরা এখন পর্যন্ত কোনো বৈঠকের ব্যাপারে একমত হতে পারিনি।’

Share.

Leave A Reply