আমি ওয়ার্নার কিংবা শেবাগ হতে পারব না: পুজারা

0

এফএনএস স্পোর্টস: ২৩৭ বলে ৬৬, ৮৮ বলে ২৪, ১৪০ বলে ৫৪; চেতেশ্বর পুজারার সবশেষ তিন প্রথম শ্রেণির ইনিংস। ছোট্ট এই পরিসংখ্যানে ফুটে উঠছে তার ব্যাটিংয়ের ধরন। যেটি নিয়ে প্রায়ই সমালোচনার তিরে বিদ্ধ হতে হয় তাকে। সেটি নিয়ে এবার খোলামেলা কথা বলেছেন এই ভারতীয় ব্যাটসম্যান। নিজের সীমাবদ্ধতা জানেন বলে স্ট্রাইক রেট নিয়ে চিন্তিত নন মোটেও। জানালেন, টিম ম্যানেজমেন্ট থেকে পুরো সমর্থনই তিনি পাচ্ছেন। গত কয়েক বছর ধরে টেস্ট ক্রিকেটে ভারতীয় দলের ব্যাটিংয়ে অন্যতম ভরসার নাম পুজারা। সম্প্রতি নিউ জিল্যান্ড সফরে ভারতের হোয়াইটওয়াশ হওয়া টেস্ট সিরিজে অন্য ব্যাটসম্যানরা আসা-যাওয়ার মিছিলে থাকলেও পুজারার ব্যাটিংয়ে ছিল চোয়ালবদ্ধ লড়াইয়ের ছাপ। তবে খুব বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। চার ইনিংসে ১০০ রান করেছেন ২৮.৪৯ স্ট্রাইক রেটে। ৩২ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান গত সপ্তাহে রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে বাংলার বিপক্ষে ছয় নম্বরে নেমে ৬৬ রান করতে খেলেন ২৩৭ বল। ইনিংসের পথে তিনি অর্পিত ভাসাভাড়ার সঙ্গে গড়েন ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেওয়া জুটি। তার দল সৌরাষ্ট্র প্রথমবারের মতো জিতেছে রঞ্জি ট্রফির শিরোপা। তবে দল শিরোপা জিতলেও প্রশ্ন উঠেছে তার ব্যাটিং নিয়ে। ঘরোয়া ক্রিকেটের ইনিংসেরও ২৭.৮৪ স্ট্রাইক রেট নিয়ে সমালোচনা হয়েছে অনেক। জাতীয় দল কিংবা রাজ্য দল, যেখানেই খেলুক পুজারার স্ট্রাইক রেট নিয়ে প্রশ্ন ওঠে নিয়মিতিই। বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়াকে (পিটিআই) ডানহাতি ব্যাটসম্যান জানালেন, তার ব্যাটিংয়ের ধরন নিয়ে দলের মধ্যে কারও কোনো সংশয় নেই। “আমার মনে হয় না (স্ট্রাইক রেট নিয়ে) খুব বেশি কথা হয় (দলের মধ্যে)। সংবাদমাধ্যমে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করা হতে পারে। তবে টিম ম্যানেজমেন্ট আমাকে পুরোপুরি সমর্থন করে। অধিনায়ক, কোচ অথবা অন্য কারো থেকে কোনো চাপ নেই।” “একটি বিষয় আমি পরিষ্কার করে দিতে চাই। স্ট্রাইক রেট নিয়ে প্রশ্ন উঠলে সবাই ভাবে টিম ম্যানেজমেন্ট এটা কীভাবে দেখছে। কিন্তু আমার ওপর কোনো চাপ নেই। টিম ম্যানেজমেন্ট আমার খেলার ধরন এবং এর গুরুত্ব বোঝে।” ৭৭ টেস্টে পুজারা প্রায় ৯ হাজার রান করেছেন ৪৮.৬৬ গড়ে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে গড় পঞ্চাশের ওপরে। তবুও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা হয় তাকে নিয়ে। “সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্ন উঠেছিল (রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে), ‘কেন এই রান করতে আমি এত বেশি সময় নিয়েছি?’ আমি কি কখনো সেদিকে মনোযোগ দিয়েছি? না। আমার কাজ, সব সময় দলের জয় নিশ্চিত করা।” “জানি আমি ডেভিড ওয়ার্নার অথবা বীরেন্দর শেবাগ হতে পারব না। একজন সাধারণ ব্যাটসম্যান যদি সময় নেয় (ব্যাটিংয়ে), তাতে কোনো ভুল নেই।”

 

Share.

Leave A Reply